নিজের কাজকে গুরুত্ব দিন

নিজের কাজকে গুরুত্ব দিন

আপনি যখন কঠোর পরিশ্রম করে অর্থ উপার্জন করবেন, তখন কোন কোন বন্ধু সেটাকে মূল্যায়ন করবে না। তারা আপনার পেশাটাকে হালকা করে দেখবে, এবং সেটার জন্যে যে একটা মূল্য দিতে হতে পারে, এটা কারো কারো মাথায় আসবে না।

এই জিনিসটা সবচেয়ে বেশি ফেস করে ডাক্তার বন্ধুরা, উকিল, ওয়েব ডেভলপার, ডিজিটাল মার্কেটার এবং আরও অন্যান্য পেশাজীবি। ডাক্তার হওয়া মাত্রই ত্রিভুবনের মানুষ মনে করে এদের সেবা ফ্রি হয়ে গিয়েছে। কোন কোন বন্ধুদের মেন্টালিটি এমন, তারা ভাববে, “এই শালা আমার থেকেও টাকা নিচ্ছে?” কিন্তু তারা এটা ভাববে না, “বন্ধু তার জন্যে যে অফিস আওয়ারের বাইরে এসেও এক্সট্রা ইফোরট দিচ্ছে।”

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট নিয়ে যারা কাজ করেন, পরিচিত জনদের কাছে থেকে তারাও তেমন মূল্য পায় না। মনে মনে ভাবেন এরা তো সারাদিন কম্পিউটারে বসে কি যেন সব টিপাটিপি করে। এদের কোন কাজ ই নাই।

পারিবারিক সদস্য এবং বন্ধুমহলে আপনি আপনার পণ্য বা সেবা বিক্রি করলে কখনওই তাদের কাছ থেকে সাধুবাদ পাবেন না। বরং পণ্য বা সেবার বিনিময়ে মূল্য চাইলে বা আশা করলে তিরস্কার করা হবে। আর সেবাদানে একটু উনিশ থেকে বিশ হলে আপনি খুন (রুপক অর্থে) হয়ে যাবেন।

যখন আপনি বেচা বিক্রি করবেন, প্রথম যে মানুষটা আপনার কাস্টমার হবে, যে মানুষটা আপনাকে ট্রাস্ট করবে, সে হবে এমন একজন মানুষ যাকে আপনি আগে জীবনে কোনদিন দেখেন নাই। তিনি আপনার সময়, পণ্য এবং সেবার দাম দিবে।

আবার যখন আপনি সফল হবেন, সবাইকে খাওয়ানোর যোগ্যতা হবে, সবার বিল দেয়ার যোগ্যতা হবে, সেদিন দেখবেন, সব বন্ধু, পরিবারের সবাই হাজির, পাশে পাবেন না হয়তো শুধু সেই অচেনা কাস্টমারকে, যে একদম প্রথম দিন আপনাকে বিলিভ করেছিলো, আপনার পণ্য, সেবা, সময় ও শ্রমের জন্যে মূল্য দিয়েছিলো।

মূল চিন্তা-জ্যাক মা

আমি কাজ করছি ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে। এখন পর্যন্ত অনেক গুলো সাইট নিয়ে কাজ করেছি। এখনো বিভিন্ন সাইটের কাজ চলছে। সবার কাছে দোয়া ও ভালোবাসা চাই।

আপনার যদি ওয়েবসাইট এর প্রয়োজন পড়ে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানিয়ে দেওয়া হয়।